মানিকগঞ্জে কোরবানি ঈদকে কেন্দ্র করে কাজ নাথাকায় দুঃসময় পার করছে কামাররা

মানিকগঞ্জে কোরবানি ঈদকে কেন্দ্র করে কাজ নাথাকায় দুঃসময় পার করছে কামাররা


মানিকগঞ্জে কোরবানি ঈদকে কেন্দ্র করে দুঃসময় পার করছে কামাররা। দিনরাত টুং টাং শব্দে মুখরিত হয়ে উঠে থাকার কথা থাকলেও করোনা ভাইরাসের কারণে বেশ কয়েক মাস দোকান বন্ধ থাকায় কাজ নাথাকার কারণে প্রতিবছরের তুলনায় এবার কিছুটা ঝিমিয়ে পরেছে কামাররা।

মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার সদর বাজার, এলাকায় রয়েছে কামারদের কারখানা। সারা বছর ব্যস্ত থাকলেও কোরবানির ঈদ আসার আগে সেই ব্যস্ততা পায় ভিন্নমাত্রা। কেউ নতুন দা, বটি, ছুরি, চাপাতি তৈরি করছেন আবার কেউ পুরোনোগুলো শান দিচ্ছেন।

ভরত চন্দ্র কর্মকার জানান – করোনা, বন্যা ও অতিবৃষ্ঠির কারণে ঠিক মত দোকান খুলতে পারছিনা। বউ বাচ্চা নিয়ে খুব কষ্টে আছি। এদিকে আবার কিস্তি।

কামার রাম প্রসাদ বলেন, সারা বছর গুটিকয়েক দা, ছুরি, চাপাতি, শাবল, হাতা বিক্রি বা শানের কাজ করে দোকান ভাড়া ও কর্মচারীদের বেতনসহ নানা দিক খরচ দিয়ে লোকসানে থাকতে হয়। এ লোকসান পোষাতে আমরা কোরবানির ঈদের অপেক্ষা করি। কর্মকার মতিয়ার রহমান বলেন, এবারে করোনার প্রভাবে এই পেশায় টিকে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে।

বার্তা প্রেরক
আল মামুন
মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

মন্তব্য করুনঃ

আপনার মন্তব্য লিখুন!
এখানে আপনার নাম লিখুন